বন্ধুর সঙ্গে দেখা করতে চীনে পুতিন

  • বিশেষ প্রতিনিধি
  • প্রকাশ: ১৭ অক্টোবর ২০২৩, ৬:৪৩ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: ৮ মাস আগে
  • Print

চীনে পৌঁছেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। সফরে আসন্ন ‘বেল্ট অ্যান্ড রোড ফোরামের’ শীর্ষ সম্মেলনে অংশ নেয়ার পাশাপাশি পুতিন তার ‘প্রিয় বন্ধু’ শি জিনপিংয়ের সঙ্গেও দেখা করবেন।

আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত (আইসিসি) থেকে পুতিনের বিরুদ্ধে মার্চ মাসে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির পর প্রথমবারের মতো সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের বাইরে সফর করেছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।

রয়টার্সের ভিডিও ফুটেজ অনুসারে, পুতিন এবং তার সফরসঙ্গীরা মঙ্গলবার সকালে বেইজিং ক্যাপিটাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেছেন। তাকে অভ্যর্থনা জানান চীনের বাণিজ্যমন্ত্রী ওয়াং ওয়েনতাও।

সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট জানিয়েছে, আজ থেকে শুরু হওয়া দুই দিনব্যাপী বেল্ট অ্যান্ড রোড ফোরামে ১৩০টিরও বেশি দেশ এবং ৩০টিরও বেশি আন্তর্জাতিক সংস্থা অংশ নেবে। চীনের মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ফোরামে অংশগ্রহণ করবেন আফ্রিকান এবং দক্ষিণ-পূর্ব এশীয় নেতারা।

বার্তাসংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে জানা গেছে, প্রেসিডেন্ট পুতিন তার কমিউনিস্ট প্রতিবেশীর সাথে ইতোমধ্যেই শক্তিশালী সম্পর্ক আরও জোরদার করার মিশনে রয়েছেন। যদিও চীনের কাছে দিনে দিনে মস্কো ক্রমবর্ধমানভাবে ছোট অংশীদারে পরিণত হচ্ছে। বিশেষজ্ঞরা অবশ্য রাশিয়ান এই প্রেসিডেন্টের চীন সফরের সময় কয়েকটি বড় চমক আশা করছেন। ক্রেমলিন জানিয়েছে, বুধবার এই দুই নেতা বিআরআই ফোরামের ‘সাইডলাইনে’ দেখা করবেন।

মূলত এই সম্মেলন এমন এক সময়ে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে যখন বৈশ্বিক গণমাধ্যমের শিরোনামে প্রাধান্য পাচ্ছে ফিলিস্তিনি স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র সংগঠন হামাসের সঙ্গে ইসরায়েলের চলমান যুদ্ধ। তবে পরিস্থিতি যেটিই হোক চীনের সঙ্গে সম্পর্ক আরও মজবুত করতে চাইছে রাশিয়া।

ইউক্রেনের সঙ্গে লড়াইয়ের কারণে রাশিয়াকে বহুবার হুঁশিয়ারি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। আর রাশিয়ার মতো চীনও হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের ‘প্রাথমিক কৌশলগত প্রতিদ্বন্দ্বী’। তাই এই দুই দেশ নিজেদের মধ্যে অংশীদারিত্ব এবং সম্পর্ক আরও জোরদার করতে চাইছে। আর এই লক্ষ্য নিয়েই জিনপিংয়ের সঙ্গে দেখা করতে চলেছেন পুতিন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

এই সম্পর্কিত আরও নিউজ